Category: ব্রেক্সিট

0

ডেভিড ডেভিসের পর এবার বিদায় নিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী বরিস জনসন

লণ্ডন।। ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার বলিষ্ট কণ্ঠ, বৃটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিঃ বরিস জনসন এবার পদত্যাগ করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর ‘ব্রেক্সিট’ কৌশলের কারণেই তার এই পদত্যাগ। তার এই পদত্যাগে রক্ষণশীল দলের এক অংশ খুশীই হবেন তবে অন্যান্যদের নাখোশ করবে।...

0

ব্রেক্সিটের বিপক্ষে মহাসমাবেশ, দেখার বিষয় কতটুকু সফল হয় এ সমাবেশ

লণ্ডন সংবাদকক্ষ।। লণ্ডনে বিশাল আয়োজন চলছে এক নতুন মহাসমাবেশের। বলা যায়, নতুন এ মহাসমাবেশের আয়োজন লণ্ডনে আসন্ন গ্রীষ্মকে ব্যস্ত রাখছে কর্ম আর জমায়েতের উপর। সমাবেশের লক্ষ্য চূড়ান্তরূপে ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার বিরুদ্ধে নতুন গণভোটের দাবী নিয়ে। সমাবেশের আয়োজনকারীদের রাজনৈতিক পরিচয়টা কিন্তু স্বচ্ছ নয়। কোন বিশেষ রাজনৈতিক দল এ আয়োজনের পেছনে নেই। তবে ডান বাম সব দলেরই মধ্যমপন্থিরা এ সমাবেশের মূল হোতা বলে পর্যবেক্ষক মহল মনে করছেন। শ্রমিক দল, রক্ষণশীল(টোরি) দল, লিবারেল ডেমোক্রেট দল কিংবা গ্রীণপার্টিসহ আরো অন্যান্য অনেক ছোট ছোট দলের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ এই আয়োজনের পেছনে কাজ করছেন ঠিকই কিন্তু বড় কোন দলই সরাসরি সামনে নেই। অবশ্য লিবডেম ও গ্রীণপার্টি পুরোপুরিভাবে এর সমর্থনে কাজ করছে। এখন অপেক্ষা কতটুকু সফল হয় এ সমাবেশ।

0

আলোচনা হয়েছে ‘ব্রেক্সিট’ উত্তর সম্পর্ক কি হবে, এ নিয়ে

লণ্ডন।। ‘ব্রেক্সিট’ নিয়ে বৈঠক করেছেন তিন দেশের তিন দিকপাল। বৃটেনের ছায়া সরকারের সচিব এমপি স্যার কেয়ার স্টারমার মূলতঃ এ বৈঠকের আয়োজন করেন। উদ্দেশ্য ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন থেকে বৃটেনের বের হয়ে আসার পর গোটা ইউরোপের সাথে বৃটেনের সম্পর্ক কি হবে, এমন জঠিল একটি কূটনৈতিক বিষয় নিয়ে তারা আলোচনা করেন। তাদের আলোচনায় নাগরীক অধিকার সংরক্ষনের বিষয়টি বেশ গুরুত্বাকারে বিবেচনা করা হয়েছে এবং তারা নাগরীক অধিকার সংরক্ষনের পক্ষপাতি। আলোচনায় কোন সিদ্ধান্ত হয়েছে কি-না তা জানা যায়নি। অবশ্য আলোচনাকারী ৩জনই তাদের টুইটারে আলোচনাকে সফল সমৃদ্ধ আলোচনা বলে মন্তব্য করেছেন।

মানুষের অধিকারের প্রকাশই 'মুক্তকথা'। দেখুন এবং লিখুন