Category: Opinion

0

মূর্তিটি কমলগঞ্জের হয়ে থাকলে এখানে প্রত্নতাত্বিক খুঁজাখুঁজির অনেক কিছু আছে

মুক্তকথা।। সম্প্রতি মৌলভীবাজারের কুরুঞ্জি চা-বাগান এলাকা থেকে প্রায় ৪লাখ টাকা মূল্যের একটি কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধার করা হয়েছে। এই কুরুঞ্জি চা-বাগান, কমলগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী কুরমা চা-বাগানের ভেতরেই একটি শাখা চা-বাগান। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ কুরমা বিওপি’র সদস্যরা,...

0

মা-বাবাকে আমি কি বলেছিলাম আমার জন্ম দাও?

মুক্তকথা সংবাদকক্ষ।। ২৭ বছর বয়সের রাফায়েল স্যামুয়েল তার বাবা-মায়ের বিরুদ্ধে মামলা করার পরিকল্পনা করছেন। তার হাস্যকর অভিযোগ – তার অনুমতি না নিয়ে বাবা-মা তার জন্ম দিলেন কেন? এই স্যামুয়েল মুম্বাইয়ের বাসিন্দা এবং একজন ব্যবসায়ী। রাফায়েল স্যামুয়েল...

0

সদিচ্ছা নিয়ে এগিয়ে আসলে সড়ক দূর্ঘটনার হার কমে আসবে

আমিনূর রশীদ বাবর।। অযাচিত অনাকাঙ্ক্ষিত বেদনাবহ ঘটনাই দুর্ঘটনা। বিভিন্ন ধরনের দুর্ঘটনা আছে। কিন্তু সড়ক দুর্ঘটনা এখন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রতি দিন খবরের কাগজ হাতে নিলেই দেখবেন কোথাওনা কোথায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত হওয়ার দুঃসংবাদ।...

0

মন্ত্রী বলেছেন নিজের মন্ত্রনালয় দূর্ণীতিমুক্ত করে শুরু করবেন

সবকিছুর আগে নিজের মন্ত্রনালয় দূর্ণীতিমুক্ত করে শুরু করার প্রত্যয় মন্ত্রীর এখন থেকে শুরু হলো আমাদের দেখার পালা মুক্তকথা সংবাদকক্ষ।। খবরটি পুরানো তবে এখন‌ও মহিমা হারায়নি। কারণ খবরের বাণীর সাথে জড়িত আছেন তৃণমূল থেকে গড়ে উঠা, মাঠের...

0

মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা যুদ্ধের চেতনাবিরুধী শক্তি কি নির্মূল হয়ে গেছে?

হারুনূর রশীদ।। মুক্তিযুদ্ধ আর স্বাধীনতাযুদ্ধ দু’টো ভিন্ন বিষয়। কিন্তু আমরা দু’টুকে গুলিয়ে ফেলে এক করে দেখি। অন্ততঃ আমরা দেখে আসছি সেই সত্তুর(১৯৭০) সাল থেকেই। পাকিস্তান আমলের সে সময়ে প্রগতিশীল দলগুলো এসব গভীর কূট রাজনৈতিক আলাপ নিয়ে...

0

মানুষ স্বস্তিতে নিরুপদ্রবে ভোট কেন্দ্রে যাবার নিশ্চয়তা চায়

নির্বাচন মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের কোন মাপকাঠি নয়। পরিবর্তনশীল বিশ্বে সমাজে সমাজে গড়ে উঠা সুশীল মানুষের আবিষ্কার নির্বাচন। মত প্রকাশের অধিকার প্রয়োগের অবিপ্লবী শান্ত-সুশীল পথ এটি। যে কোন কাজে পরিচালক নির্ধারণের প্রয়োজন ইতিহাসের আদিতে ছিল এখনও আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে বলেই আমরা আস্তাবান হতে চাই। কিন্তু অত্যাধুনিক এ সময়ে মানুষ নির্বাচনকেও কেমন জবর দখলের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে শুরু করেছে। সমস্যাটা এখানেই।

0

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর জোনাল অফিস মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজার জেলা ফ্যাসিলিটিজ ডিপার্টমেন্ট যা বর্তমানে ‘জেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর’ নামেই পরিচিত। মৌলভীবাজারে একটি জোনাল শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর অফিস ভবন নির্মাণের সিদ্ধান্ত এবং অর্থ বরাদ্দ অনেক আগেই হয়েছে। অর্থ বরাদ্ধের পর সাথে সাথেই কোন কাজ হয়না যেমন সত্য তেমনি এও সত্য যে বহু এলাকায় অর্থ বরাদ্ধের অপেক্ষায় থেকে বহু দূরদর্শী প্রভাবশালী নেতৃত্বের প্রভাবে কাজ শুরু করে দেয়া হয়। পরে অর্থ আসে ঠিকই। ২০১৬ সালে মৌলভীবাজারে সেই নমুনার একটি অধিদপ্তর অফিস ভবন নির্মাণের কথা শুরু হয় কিন্তু দূর্ভাগ্য যে আজো তা বাস্তবায়িত হয়নি। লেখক রাজনীতিক দীপু কোরেশী অনেক তথ্য সামগ্রী দিয়ে এ বিষয়ে লিখেছেন।

0

চিত্রে বড়দিনের লণ্ডন

মুক্তকথা সংবাদকক্ষ।। জনমানব শূণ্য। এ কেমন রাজ্যপাট! নতুন কিছু নয়। এ বিষয়ে সকলেই জানেন। তবে কোন ধর্মঘট বা হরতাল নয়। আর শহরটিও আমাদের বাংলাদেশের ঢাকা বা সিলেট-চিটাগং নয়! আজ ছিল বড়দিন। রাজধানী লণ্ডনের প্রানকেন্দ্র বললে ভুল...

0

রসিদপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্টিত

হিফজুর রহমান তুহিন, কমলগঞ্জ।। কমলগঞ্জ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী পতনউষার ইউনিয়নের ৯নং রসিদপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কৃতি পিএসসি ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে এক সম্বর্ধনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিও উপস্থিত ছিলেন। মাঠপর্যায়ের গ্রামীণ বিদ্যালয়। ছাত্র-ছাত্রীদের কি দিয়ে অভিনন্দন জানাবে? কি-ই-বা আছে তাদের! অবশেষে সকলে মিলে কৃতি শিশু-কিশোরদের মুখে চকলেট তুলে দেন এবং সুন্দর ভবিষ্যতের আকাঙ্ক্ষায় প্রার্থনা করেন রসিদপুর বায়তুল ইসলাম জামে মসজিদের ইমাম সফিকুর রহমান।

বিনয়ের সাথে সংসদ পদপ্রার্থীদের সমীপে-খোলা চিঠি 0

বিনয়ের সাথে সংসদ পদপ্রার্থীদের সমীপে-খোলা চিঠি

নির্বাচনে অংশগ্রহনকারী সম্মানীত জনপ্রতিনিধি মহোদয়গন, আসন্ন ৩০শে ডিসেম্বরের জাতীয় নির্বাচনে আপনারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সমাজসেবার মহান ব্রত নিয়ে আগামী দিনে একটি সুন্দর সমাজ গড়ে তুলার দায়ীত্ব নিতে। বিজয়লাভ করে আপনারা আমাদের পক্ষে জাতীয়ভাবে এই এলাকার প্রতিনিধিত্ব করবেন।...

0

আকমল মাহমুদের কবিতা

সৈয়দ আকমল মাহমুদ। সংক্ষিপ্ত ডাক নাম বসন। তার ছাত্রজীবনের পরিচিত মহলে তিনি বসনভাই বলে এখনও পরিচিত। নির্ভেজাল নিরোহঙ্কারী বন্ধুবৎসল একজন শিক্ষক। শুধু শিক্ষক বললে কিছুটা তার কম বলা হয়। তিনি শিক্ষকতার পাশাপাশি আগাগোড়া একজন ধর্মপ্রাণ মানুষ।...

0

গণমাধ্যম থেকে- শ্লোগান – বদলে যাই ৫

মুক্তকথা সংবাদকক্ষ।। একজন কবির উদ্দীন আহমদ, ‘ শ্লোগান বদলে যাই’ শিরোনামে তার ফেইচবুকে মৌলভীবাজারের পৌরশিশুপার্ক নিয়ে অতি সামান্য কিছু লিখেছেন। আমাদের চলমান সমাজ পরিবেশে অসুন্দর যা কিছু তার চোখে লেগেছে সেগুলির উল্লেখ করে  সমাজের আমরা সকলকে...

0

রক্ত দিয়ে কেনা স্বাধীনতা 

আমিনুর রশীদ বাবর  আজ মহান বিজয় দিবস, বাঙালি জাতির ঘটনাবহুল ইতিহাসে একটি শ্রেষ্ঠ দিন। এই দিন হানাদার বাহিনী বাঙালী জাতির কাছে পরাজিত হয়। দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে ত্রিশ লক্ষ শহীদ ও ২ লক্ষ মা-বোনের...

0

শেষতক কি হয় দেখার বিষয়!

বিদায়ের মুখে ২০১৮ সাল। খৃষ্ঠীয় জগৎ বড়দিনের উৎসব নিয়ে মাতোয়ারা। ২০১৯ এলো বলে।  গেল একবছরে আমাদের  সমাজ, রাজনীতি, অর্থনীতি,  বায়ূমণ্ডল ও আবহাওয়ায় অস্বাভাবিক পরিবর্তন ঘটেছে। কাহিনীকারদের ভাষায় বলতে গেলে বলতে হয়- ‘নদীতে অনেক জল গড়িয়েছে’। বিশ্বশক্তিধর...

0

কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে -ব্যারিষ্টার মওদুদ

লণ্ডন।। ব্যারিষ্টার মওদুদের একটি মন্তব্যে ফেইচবুকার লিটন চৌধুরী খুব সত্যনিষ্ঠ ও অনেকটা সাহসী মন্তব্য করেছেন। তিনি জাতিসংঘের কাজ ও ক্ষমতার উপর নিজের মনের কথা ব্যক্ত করেছেন। তার সে মন্তব্য ক্ষুদ্র আকারে হলেও অর্থহীন নয়। লিটন চৌধুরী প্রগতিশীল রাজনীতির একজন কট্টর সমর্থক। তার ফেইচবুকে মাঝে মধ্যে বাংলাদেশের রাজনীতি বিষয়ে মত প্রকাশ করেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ একজন সমাজ সচেতন মানুষ হিসেবে তার প্রতিক্রিয়া বা মন্তব্য সাধারণ মানুষের সচেতনা বৃদ্ধিতে খুবই সহায়ক বলেই আমাদের বিবেচনা।

0

গোমূত্র নিয়ে মৌলবাদী ব্যবসা আর রয়টারের পশ্চিমী চরিত্র


ভারতের বাজারে এখন পুরোদমে বিক্রি হয় গোমুত্র বা গরুর চোনা। বেশ আগের হিসেব প্রতি লিটার গোচেনা ভারতীয় মুদ্রায় ৩০টাকা দরে বিক্রি হয়। বহুল প্রচারিত কথা যে, অনেক গবেষণা করে দেখা গেছে গোমূত্রে ক্যান্সার ডায়বেটিক্স সহ প্রায় ৭০ থেকে ৮০টি ছোট বড় রোগের প্রতিষেধক উপাদান রয়েছে। হতেই পারে এমন। গরুর মাংস খেলে যখন শরীরের উপকার হয় তার চেনায়ও উপকারী উপাদান থাকতেই পারে। গো-মল দুনিয়ার বিভিন্ন দেশে ব্যবহার হয় মাটির উর্বরা শক্তি বাড়ানোর কাজে। কিন্তু সংবাদ সংস্থা রয়টার কেনো ক্ষেপেছিলেন জানতে ইচ্ছে হয়।

0

খাবার সংগ্রহ, তৈরী ও তা গ্রহনের নমুনাই মানব সংস্কৃতির সূতিকাগার

খাদ্যাভাস মানব সংস্কৃতিরই একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। জীবনচর্চ্চায় খাদ্যগ্রহন একটি বিশেষ প্রয়োজনীয় বিষয়। বলা যায় খাদ্যগ্রহনের অপর নামই জীবন। খাদ্য গ্রহনের মাধ্যমে জীবন বেঁচে থাকে। বেঁচে থাকা জীবনের বিভিন্নমুখী কাজই তার সংস্কৃতি। ফলে খাদ্যগ্রহন সংস্কৃতির নাম-নমুনা নির্ধারণের নিয়ামক। খাদ্যগ্রহনের ভেতরদিয়েই মানব শরীর পরিপুষ্ট হয়, খাদ্যবস্তুর রূপ ও গুণগত প্রতিফলন হয় সারা শরীরে। খাদ্যবস্তু তাই মানুষের রূপ ও রসের বাহন বললে ভুল হবে না।

0

“চৌপদি” ভয়ঙ্কর এক ধর্মীয় অনুশাসন নেপালে

চৌপদি প্রথা, নেপালের হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রানঘাতী এক ধর্মীয় অনুশাসন। শত শত বছরের পুরনো এ প্রথার যুপকাঠে কত যে মেয়ের প্রাণ গিয়েছে তার হিসেব কেউ রাখেনি। সে হিসেব রাখাও কোন ছোট বিষয় নয় যে, চাইলেই পাড়া যাবে। শত শত বছরের প্রচলিত এই প্রথা এখনও সমানতালে চলছে নেপালের গ্রাম গঞ্জে। মানুষের বিশ্বাস, মেয়েদের ঋতুস্রাব একটি ঐশ্বরিক বিষয়। মেয়েদের এ সময়ে ঘরের বাইরে না থাকলে ঘরের ভেতরে বিরাজমান দেবতা অসন্তুষ্ট হন। দেবতার অসন্তুষ্টি কোনভাবেই কারো কাম্য নয়। দেবতা অসন্তুষ্ট থাকলে যে কোন অঘটন ঘটতে পারে। এমনকি প্রাণ সংহারও হতে পারে।

0

ফকরুলের বক্তব্য-“জনগন নির্বাচন হতে দিবেনা…” ও কিছু কথা

হারুনূর রশীদ।। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই সরকারের পদত্যাগ ও জেলবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবী করেছে বিএনপি। খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না, বিএনপি দলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এক সভায়...

0

ফেইচবুক ব্যবহারে চৌর্য্যবৃত্তি, মূল্যবান সময় নষ্ট, কিভাবে এ অপবৃত্তি বন্ধ করা যায়?

লণ্ডন।। ‘ফেইচবুক’ আধুনিক জ্ঞানের বিষ্ফোরণ। বিজ্ঞানের নবতর ধারায় ‘ফেইচবুক’এর প্রকাশ ও বিকাশ বিশ্ব মানব সভ্যতাকে সত্যিকার অর্থেই এক নবমাত্রা দিয়েছে। মানুষের ব্যক্তি পর্যায়ের গোপনীয়তা বলতে এখন আর কিছুই থাকছে না। মানুষ নিজেরাই নিজেদের গোপনীয়তাকে ভেঙ্গে দিয়েছে এই ফেইচবুক ব্যবহার করতে গিয়ে। ‘ফেইচবুক’এর বিকাশ সকল মানুষের মনের গোপন কথাকে গণমাধ্যমের বিষয় বানিয়ে দিয়েছে। এর কুফল সুফল দু’দিকই আছে। যেমন সবকিছুরই ভাল-মন্দ দু’টি দিক থাকে। ফেইচবুক তাই বেদপুরাণের চিত্রগুপ্তের খাতাও।

দুনিয়াটা রং বদলায়! আমরাও বদলে যাবো 0

দুনিয়াটা রং বদলায়! আমরাও বদলে যাবো

হারুনূর রশীদ।। 
গানতো বুঝতেই পারিনি। এটি অবশ্য আমারই ব্যর্থতা। সুদীর্ঘকাল ধরে এখানে থেকেও তাদের সঙ্গীত চর্চ্চার বিষয়ে খুবই অজ্ঞ। আর জ্ঞাত হবোই বা কিভাবে? কাজ নিয়ে এখানকার বসবাসকারী সকল বিদেশীরই একই অবস্থা। কাজ নিয়েই ব্যস্ত। সন্তানাদির...

0

গানটি সাকিরার নয়, গেয়েছিলেন প্রয়াত শিল্পী পূরবী মুখোপাধ্যায়

লণ্ডন।। আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি একটি ভূঁয়া খবর প্রকাশের জন্য। গত ৯ই আগষ্ট তারিখে আমরা প্রখ্যাত কলম্বিয়ান সঙ্গীত শিল্পী সাকিরাকে নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ করি। সেখানে আমরা লিখেছিলাম সাকিরা একটি বাংলাগান গেয়েছেন, যা কি-না ভূপেন হাজারিকার গান-“বিস্তীর্ণ দু’পাড়ে…ও গঙ্গা বইছো কেনো”। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে এ রকম কোন বাংলাগান সাকিরা গাননি বরং প্রচারকৃত ওই গানটি গেয়েছেন কলকাতার প্রতীতযশা বাঙ্গালী শিল্পী প্রয়াত পূরবী মুখোপাধ্যায়।

0

এসব কি মাইকেল মধুসুদনের ‘অরিন্দম কহিলা বিষাদে’ না-কি পাগলের প্রলাপ


হারুনূর রশীদ।। খবরটি বেশ পুরনো হয়ে গেছে। গত দু’সপ্তাহ আগের খবর। পুরনো হয়ে গেলেও এর সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রতিক্রিয়া ব্যাপক এবং নির্দিষ্ট কোন সময়ের মধ্যে থেকেই শেষ হয়ে যাবার নয়। 
এই অরিন্দমগুলো আর কেউ নন আসামের...

0

মেধাবী রোকেয়ার চার্টার্ড একাউন্টেন্ট হওয়ার স্বপ্ন কি বাস্তবায়িত হবে ?

মৌলভীবাজার অফিস।। গ্রামীণ বাংলাদেশের কমলগঞ্জ উপজেলার উত্তর তিলকপুর গ্রামের রোকেয়া বেগম। দরীদ্র কৃষক কন্যা! গ্রামের শীতল শান্ত পরিবেশে বড় হয়েছেন। এ বছরের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। রোকেয়া ৫ম শ্রেণিতেও ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছিল। মনে তার খুব ইচ্ছা চুক্তিকারী হিসাব রক্ষক (চার্টার্ড একাউন্টেন্ট) হবেন। তার আছে অদম্য ইচ্ছা আর দৃঢ় মনোবল। কিন্তু পাহাড়সম বাধা হয়ে দাড়িয়ে আছে পরিবারের দারীদ্র। পরিবারের আয়ের একমাত্র উৎস কৃষিক্ষেত। এ আয় দিয়ে মেয়েকে চার্টার্ড একাউন্টেন্সি পড়ানো দরীদ্র বাবা রফিক মিয়ার পক্ষে কোন অবস্থায়ই সম্ভব নয়। তবে কি রোকেয়ার এতো সাধনার লালিত স্বপ্ন, স্বপ্নই থেকে যাবে?

0

আমেরিকা আসামী হলো আন্তর্জাতিক আদালতে

১৯৫৩ সালে ইরাণের নবনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ মোসাদ্দেগকে অনৈতিকভাবে সামরিক শাসনের মধ্যদিয়ে সরিয়ে একটি পুতুল সরকার গঠন করা হয়। পেছনে থেকে কল-কাটি নাড়ে আমেরিকা। অবশ্য একটু দেরীতে হলেও ইরাণীয়ানগন বুঝতে সক্ষম হয় যে তাদের শাসক কে! ফলে একটু দেরীতে হলেও ২৬বছরের মাথায় ১৯৭৯সালে বিপ্লব ঘটে ইরাণে। এর পর থেকেই ইরাণ হয়ে পড়ে আমেরিকার শত্রু আর সোভিয়েট ইউনিয়নের খাঁটী বন্ধু। শুরু হয় আমেরিকার ইরাণ বিরুধী বিভিন্ন ভূ-রাজনৈতিক কর্মযজ্ঞ। বিভিন্ন নমুনার নিষেধাজ্ঞার পর নিষেধাজ্ঞা চলতেই থাকে ইরাণকে কব্জায় আনার জন্য। এবার ইরাণ মামলা ঠুকেছে আমেরিকার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে।

0

ডেভিড ডেভিসের পর এবার বিদায় নিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী বরিস জনসন

লণ্ডন।। ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার বলিষ্ট কণ্ঠ, বৃটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিঃ বরিস জনসন এবার পদত্যাগ করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর ‘ব্রেক্সিট’ কৌশলের কারণেই তার এই পদত্যাগ। তার এই পদত্যাগে রক্ষণশীল দলের এক অংশ খুশীই হবেন তবে অন্যান্যদের নাখোশ করবে।...

0

সত্যিকারের পর্যটন নগরী হওয়ার মায়ামৃগ কি ধরা দেবে?

হারুনূর রশীদ।। ধীরস্রোতা ছড়া তীরে ডাহুক ডেকে যায়। হাম হাম চলে নিজের মত আগের ঠিকানায়। অগনিত কাল নিজের ইচ্ছায়ই চলে আসছিল সে। চলনে- আচরণে প্রকৃতির যৌবনবতী সুদর্শনা কন্যা “হাম হাম”! কোন কালেই কারো কোন ক্ষতির কারণ...

0

ক্রীড়াপ্রেমী কমরুজ্জামান আর নেই

কামরুজ্জামান আহমদ। মৌলভীবাজারের খেলার জগতের এক দিকপাল। প্রানপুরুষ বললে ভুল বলা হবেনা। বয়োজ্যেষ্ঠদের কাছে কমরুমিয়া আর ছোটদের কাছে সবার প্রিয় কমরুভাইছাব। রাসভারি শরীরের মানুষ হয়ে‌ও খেলা-ধূলাকে পছন্দ করতেন। নিজে ফুটবল খেলতেন। বহুদিন ফুটবলের রেফারী হিসেবে‌ও দায়ীত্বপালন করেছেন সাগ্রহে। কোন সময়েই খেলা নিয়ে তার কোন অনুযোগ অভিযোগ ছিল না। খেলা-ধূলার সকল অবস্থায়ই নিজেকে মানিয়ে নিতে পারতেন।
হাসিমুখ ছিল তার জন্মগত আশীর্বাদ, নিত্যসঙ্গী। পায়েচলা সাদা-মাটা জীবন যাপন ছিল চরিত্রের প্রধান বৈশিষ্ট। জীবনের সকল সমস্যাকে মোকাবেলা করেছেন বিনয়ী ব্যবহারের ভেতর দিয়ে। সত্যিকারের সুহৃদ ব্যক্তিত্ব ছিলেন প্রয়াত কমরুজ্জামান। তার অন্তর্ধানের ক্ষতি পূরণ করার নয়।

0

ঘটনাটি সম্ভবতঃ সত্য ছিল না

“আইয়াম ই জাহিলিয়াৎ”। আরবীয়ানদের উদ্দেশ্যে দেড়হাজার বছর আগের মন্তব্য। কে এই উক্তি করেছিলেন নতুন করে বলার মনে হয় প্রয়োজন নেই। বিষয় হচ্ছে আরবীয়ান দেশ মধ্যপ্রাচ্যের ইয়েমেনকে নিয়ে। ইয়েমেন, একসময় গোটা আরব বিশ্বের প্রানকেন্দ্র ছিল। জ্ঞানার্জনের জন্য আরবীয়ান শুধু নয় সুদূর তুর্কীস্থান থেকেও মানুষ যেতো। তুর্কীদের কুনিয়া থেকে পিতৃ-মাতৃহীন জালালুদ্দীন আধ্যাত্মিক জ্ঞান অর্জনের জন্য তার মামা আহমদ কবীরের কাছে ইয়েমেনে গিয়েছিলেন। শুধু যে গিয়েছিলেন তা নয়, পরম জ্ঞানে গুণী হয়ে নিজের জীবন প্রবাহ ও ধর্মপ্রচারের উদ্দেশ্যে ইয়েমেন ছেড়ে ভারতের উদ্দেশ্যে এসেছিলেন এবং শাহ জালাল নামে খ্যাত হয়েছিলেন। আরব মুল্লুকে তখন যুদ্ধ বিগ্রহ লেগেই ছিল। সব সময় এক অশান্ত পরিবেশ বিরাজ করতো। ভারত তখন শৌর্য্যবির্য্যের শীর্ষে। সম্পদে ভরপুর। ভারতের মানুষ দেশ ছেড়ে বাহিরে যাবার চিন্তাই করতো না।

0

ঠিকই ভারত কি মেয়েদের বসবাসের জন্য হুমকির এক দেশ?

রাতারাতি অনেক কিছুই বদলে যাচ্ছে। আজ যে ভাল কাল সেই শয়তান হয়ে দাড়াচ্ছে। রাতারাতি মানব সমাজের এমন পরিবর্তন কোন মানুষের জন্যই কল্যাণ বয়ে নিয়ে আসার বার্তা নয়। বরং অশণি সংকেত! সারা দুনিয়ায় মেয়েদের জন্য সবচেয়ে হুমকির...

0

দুমুখো নীতি! এ নীতিতে প্রায় সকলেই একমত

হারুনূর রশীদ টেলিফোনে আমার এক অনুজের সাথে আলাপ হচ্ছিল। আমার একটি লেখা তার খুব পছন্দ হয়েছে। তাই ওই ভাইটি আমায় সাধুবাদ জানানোর জন্য ফোন করেছিল। সে আমায় অনুরোধ করলো এ ধরনের তথ্য সামগ্রী দিয়ে আরো লিখার...

0

দারুল উলুম ইসলামী স্কুলের গ্রেপ্তারকৃত শিক্ষক ও তার পুত্রকে স্কুলের সকল দায়ীত্ব থেকে বরখাস্ত

লণ্ডন।। লণ্ডন চিজেলহার্স্ট-এর ইসলামী স্কুল। নাম “দারুল উলুম ইসলামী স্কুল”। বাপ-বেটার স্কুল বললে অত্যোক্তি হবে না। বাবা মোস্তাফা মুসা স্কুলের প্রধান শিক্ষক আর পুত্র ইউসুফ মুসা স্কুলের নিরাপত্তার সার্বিক দায়ীত্ব পালন করেন। স্কুলটির ছাত্রসংখ্যা ১৫৫জন কিশোর। তাদের বাবা-মা বছরে ৩০০০ পাউণ্ড হিসেবে বেতন দিয়ে যান। অথচ স্কুলের নামে কোন ব্যাংক হিসাব নেই। সব অর্থ প্রধান শিক্ষকের কাছে নগদ আসে। বিগত দু’টি অফস্টেড পরিদর্শনে স্কুলের ফলাফল শূণ্য। শিক্ষা কর্তৃপক্ষের অভিযোগ স্কুলের নিরাপত্তা টলটলায়মান। কোন ভরসা রাখা যায় না। তার চেয়ে স্কুলটিকে সরকারী খাতা থেকে বাদ দিয়ে বন্ধ করে দেয়াই উত্তম। পুলিশের ধারণা এ বিপুল পরিমান অর্থ মুদ্রাপাচারে ব্যবহার হতো।

0

মহাপ্রয়াণে সাংবাদিক চান মিয়া

সাংবাদিক চান মিয়া আর নেই। পুরো নাম এফ এম ফারুক ওরপে চান মিয়া। স্বাধীনতার পর সাংবাদিকতা শুরু করেছিলেন দৈনিক বাংলাবাজার পত্রিকার মধ্য দিয়ে। তার পর কালের যাত্রাভেলার সোয়ারী হয়ে এক পর্যায়ে দৈনিক ইনকিলাবের ঘাটে এসে থিতু হন মফঃস্বল সাংবাদিক হিসেবে। আমাদের সাথে তার লেখনীর মাধ্যমে পরিচয়। আমাদের মুক্তকথা প্রকাশের সূচনা থেকেই তিনি লিখতেন। আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে দ্বিধা নেই যে তিনি একজন ঋদ্ধ সাংবাদিক ছিলেন। কোন সংবাদের গভীরে পৌঁছা তিনি বুঝতেন। তার সংবাদ লেখা খুব সংবেদনশীল ছিল। আমাদের বিশ্বাস সাংবাদিক এফ এম ফারুক চান মিয়া তার কর্মের মাঝেই বেঁচে থাকবেন ছাতকের সাংবাদিক সমাজে। আমরা তার অন্তর্ধানে শোকাহত, বেদনা বিধুর ভারাক্রান্ত মনে সমবেদনা জানাচ্ছি শোকাহত পরিবার পরিজনকে। চানমিয়া যেখানে যে নমুনায়ই থাকেননা কেনো তিনি শান্তির সর্বোচ্চ স্থানে ফুলসজ্জ্বায় থাকবেন এবং এটিই আমাদের কামনা।

0

বর্ণবাদ আর কাকে বলে!

হারুনূর রশীদ ইংল্যাণ্ডের বিশ্বকাপ ফুটবল নিয়ে শ্রমিক দলীয় নেতা জেরেমী করবিন তার টুইটারে মন্তব্য করেছেন। তিনি নেহাৎই নিজের মনথেকে প্রখ্যাত স্কটিশ ফুটবলার বিল স্যাঙ্কলির একটি উক্তি তুলে ধরেন। সাথে সাথেই তার বিরুধীরা তার মন্তব্যকে নিজেরা বানিয়ে...

0

দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে নিয়ে এমন ভয়ঙ্কর অপকর্ম, বিশ্বাস করতে মন চায় না

রচনার সব শেষের রঙ্গিন শিরোনামগুলো বাংলাদেশের শিক্ষা নিয়ে ইউটিউবের প্রতিবেদন। এগুলো ইউটিউবে প্রচারিত গত ৩দিনের অগণিত ডজন ডজনের কয়েকটি মাত্র। দেশের শিক্ষার গায়েবী জানাজা পড়ার ইউটিউবের এমন প্রচার যে কেউ দেখলে মাথা গুলিয়ে যাবার মত অবস্থা হবে। খবরগুলো ছোট-বড় বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের দেয়া। সংবাদপত্রও এমন মাথা গুলানো খবর পরিবেশন করেছে। এ চিত্র কোনভাবেই কাঙ্ক্ষিত নয়। কোন দেশ বা মানবগুষ্ঠীর শিক্ষাখব্যবস্থাকে দীর্ঘদিনের জন্য আতুর করে রাখার জন্য এ নমুনার কাজই যথেষ্ট। শিরোনাম থেকে স্পষ্টই বুঝা যায় বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে পরিকল্পিতভাবে ধ্বংসের লক্ষ্যে এমন কাজ চালিত হচ্ছে।

0

ব্রেক্সিটের বিপক্ষে মহাসমাবেশ, দেখার বিষয় কতটুকু সফল হয় এ সমাবেশ

লণ্ডন সংবাদকক্ষ।। লণ্ডনে বিশাল আয়োজন চলছে এক নতুন মহাসমাবেশের। বলা যায়, নতুন এ মহাসমাবেশের আয়োজন লণ্ডনে আসন্ন গ্রীষ্মকে ব্যস্ত রাখছে কর্ম আর জমায়েতের উপর। সমাবেশের লক্ষ্য চূড়ান্তরূপে ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার বিরুদ্ধে নতুন গণভোটের দাবী নিয়ে। সমাবেশের আয়োজনকারীদের রাজনৈতিক পরিচয়টা কিন্তু স্বচ্ছ নয়। কোন বিশেষ রাজনৈতিক দল এ আয়োজনের পেছনে নেই। তবে ডান বাম সব দলেরই মধ্যমপন্থিরা এ সমাবেশের মূল হোতা বলে পর্যবেক্ষক মহল মনে করছেন। শ্রমিক দল, রক্ষণশীল(টোরি) দল, লিবারেল ডেমোক্রেট দল কিংবা গ্রীণপার্টিসহ আরো অন্যান্য অনেক ছোট ছোট দলের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ এই আয়োজনের পেছনে কাজ করছেন ঠিকই কিন্তু বড় কোন দলই সরাসরি সামনে নেই। অবশ্য লিবডেম ও গ্রীণপার্টি পুরোপুরিভাবে এর সমর্থনে কাজ করছে। এখন অপেক্ষা কতটুকু সফল হয় এ সমাবেশ।

0

দু’বছর আগের একটি মিথ্যা প্রচারণাকে আবারো বাজারে নিয়ে এসেছে ফেইচবুকের ব্যবহার

লণ্ডন।। ফেইচবুক ব্যবহার করে মিথ্যা প্রচারণা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারী মাসের একটি মিথ্যা প্রচারণাকে আবারো ফেইচবুকে নিয়ে আসা হয়েছে। একেবারে উদ্দেশ্যহীনভাবে যে আনা হয়েছে তা নয়। অবশ্যই এর পেছনে রয়েছে কারণ রয়েছে। প্রথমতঃ লাইক ব্যবসা একটি কারণ। দ্বিতীয়তঃ হয়তো বা ফেইচবুক ইদানিং ভূয়া আটকাতে কতটুকু সক্ষম তা নিরিখ করাও এ মিথ্যা প্রচারণার অন্তর্নিহীত উদ্দেশ্য থাকতে পারে। বিষয়টি যা-ই হয় না কেনো, এ যে অনভিপ্রেত তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এই ভূঁয়া প্রচারণার মধ্যদিয়ে ইতিমধ্যেই কেউ যে ঠকে যাননি, তা আমরা কেউ হলফ করে বলতে পারিনা। একমাত্র ফেইচবুক কর্তৃপক্ষের সুতীক্ষ্ণ নজরই এসব ভয়ঙ্কর মিথ্যা প্রচারণা থেকে আমাদের রক্ষা করতে পারে।

0

বৈশাখী মেলার ব্যবস্থাপনা নিয়ে ‘রাধারমণ সোসাইটি’র গুরুতর অভিযোগ

লণ্ডন।। বলতে গেলে সারা বিশ্বময় যে সাংস্কৃতিক আন্দোলনের উজ্জ্বল ছটা ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের সেই সাড়া জাগানো ‘বৈশাখী মেলা’র এবারের ব্যবস্থাপনার উপর গুরুতর অভিযোগ এনেছে বৃটেনের “রাধারমণ সোসাইটি”। তাদের ভাষায়, বাঙ্গালীর শিল্প-সংস্কৃতিকে বিশ্ব সভায় শক্ত ও সুন্দরভাবে তুলে ধরার পরিবর্তে কাউন্সিলের এবারের ব্যবস্থাপনা পর্ষদ গঠন করা হয়েছে কতিপয় কর্মচারী নিয়ে। যাদের নিজস্ব সংস্কৃতি ও ভাবধারা সম্পূর্ণ বিপরীত। এরা বাংলার শিল্প-সংস্কৃতিকে তুলে ধরার পরিবর্তে বরং জনবিচ্ছিন্ন ও নীতিভ্রষ্ট করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। এ পরিকল্পনার বিরুদ্ধে রাধারমণ সোসাইটি তাদের সর্বশক্তি দিয়ে মোকাবেলা করে যাবার বাক্যদান করেছেন।

0

ভারত-বাংলাদেশ-পাকিস্তান কি একটি ফেডারেল রাষ্ট্র কাঠামোয় চলতে পারে না

লণ্ডন।। বাংলাদেশ আবার কি পাকিস্তানের সাথে এক হয়ে যেতে পারে না? এমন প্রশ্ন নিয়ে কিছু কিছু অনলাইন গণমাধ্যম খুবই হররোজ লিখে যাচ্ছেন। বিশেষ করে ইংরেজী ভাষায় প্রকাশিত “কৌড়াডাইজেষ্ট” এসব বিষয় নিয়ে খুবই সরব। অবশ্য তাদের প্রকাশনার বিষয়ই এমনধর্মী। এ নমুনার নানান বিষয় নিয়ে বিভিন্ন মানুষের প্রশ্ন এবং প্রশ্নের উত্তর প্রকাশ করাই তাদের কাজ বলে মনে হয়। কেউ কেউ বলেছেন পাকিস্তান-বাংলাদেশ মিলে একটি ফেডারেশন গঠন করা যায় আবার অনেকেই মনে করেন শুধু পাকিস্তান-বাংলাদেশ কেনো ঐতিহাসিকভাবে একথাকা ভারত-বাংলাদেশ-পাকিস্তান এ তিনটি দেশই একটি ফেডারেল রাষ্ট্র কাঠামোর রাজনৈতিক নিয়মে চলতে পারে।

0

আলোচনা হয়েছে ‘ব্রেক্সিট’ উত্তর সম্পর্ক কি হবে, এ নিয়ে

লণ্ডন।। ‘ব্রেক্সিট’ নিয়ে বৈঠক করেছেন তিন দেশের তিন দিকপাল। বৃটেনের ছায়া সরকারের সচিব এমপি স্যার কেয়ার স্টারমার মূলতঃ এ বৈঠকের আয়োজন করেন। উদ্দেশ্য ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন থেকে বৃটেনের বের হয়ে আসার পর গোটা ইউরোপের সাথে বৃটেনের সম্পর্ক কি হবে, এমন জঠিল একটি কূটনৈতিক বিষয় নিয়ে তারা আলোচনা করেন। তাদের আলোচনায় নাগরীক অধিকার সংরক্ষনের বিষয়টি বেশ গুরুত্বাকারে বিবেচনা করা হয়েছে এবং তারা নাগরীক অধিকার সংরক্ষনের পক্ষপাতি। আলোচনায় কোন সিদ্ধান্ত হয়েছে কি-না তা জানা যায়নি। অবশ্য আলোচনাকারী ৩জনই তাদের টুইটারে আলোচনাকে সফল সমৃদ্ধ আলোচনা বলে মন্তব্য করেছেন।

0

দুনিয়া রাজনীতির বাঘা বাঘা খেলোয়াড়দের মুখ লুকানোর সময় খুব কাছেই

হারুনূর রশীদ।। বিশ্ব রাজনীতি নিয়ন্ত্রণকারীদের মুণ্ডু ঘুরিয়ে দেয়ার মত কাজ করেছে দুই কোরিয়া। যদি না এটা তাদেরই পাতানো কোন নতুন দূরভিসন্ধি না হয়ে থাকে। দুই কোরিয়ার এ বন্ধুত্ব একদিকে যেমন দুনিয়ায় নতুন এক যুগ সন্ধিক্ষনের ইঙ্গিত...

0

তবে কি এ‌ও ধনবাদের নিয়ম ও নিয়তি

প্রায় দু’হাজার বছরের পুরানো শহর লণ্ডন। রোমানগন এ শহর প্রতিষ্ঠা করেন আজ থেকে ১৯৭৫ বছর আগে। সেইতো চলার শুরু। আধুনিক লণ্ডনে প্রায় ৭০ লাখ মানুষের বসতি। সপ্তদশ শতক থেকেই গোটা ইউরোপে লণ্ডন গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক রাজধানী। ঊনবিংশ শতাব্দীতে এটিই ছিল বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শহর। এখনও তার সে ঐতিহ্য বজায় রেখে আছে। আগামী অজানা।

0

অতীব প্রয়োজনীয় সেবাখাত বন্ধ করে দিয়ে উন্নত দেশ কেউ দাবী করতে পারে?

লণ্ডন।। কৃচ্ছতার নামে খরচ কমাতে গিয়ে সাধারণ মানুষের এখন খাবার কমিয়ে আনার পর্যায়ে এসে দাঁড়িয়েছে। প্রশ্ন একটাই, খরচ কমানোর নামে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেড় হয়ে আসা, বিভিন্ন সেবামূলক ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাওয়া, সর্বোপরী জাতীয় স্বাস্থ্যসেবার নাকাল অবস্থার পর একটি উন্নত দেশের আর কি থাকে উন্নত দাবী করার? এতোসবের পর প্রশ্ন কি আসতে পারে না যে আমরা আসলে কোন লক্ষ্যে হাটছি?

0

হাছন রাজাকে নিয়ে নতুন নাটক ‘হাছনজানের রাজা’

ঢাকা।। দেওয়ান হাছন রাজা চৌধুরী। সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা, রামপাশা, লক্ষ্মণশ্রী ও সিলেটের একাংশ নিয়ে পাঁচ লাখ বিঘার বিশাল অঞ্চলের জমিদার ও মরমী গীতিকার কবি ছিলেন এই দেওয়ান হাছন রাজা চৌধুরী। তাকে নিয়েই হয়েছে নতুন নাটক “হাছনজানের রাজা”। লেখক শাকুর মজিদ। হাছন রাজাকে নিয়ে নাটক বা ছায়াছবি নতুন নয়। আরো হয়েছে। দর্শক হিসেবে আমরা অপেক্ষায় রইলাম এবারের নাটকটি দেখার প্রবল ইচ্ছায়।

0

বিশ্বের ধনবাদী নেতৃত্ব ‌ও একজন হি জিনপিং

হারুনূর রশীদ।। চীনা কমুনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক হি জিনপিং একই সাথে তিনি জনগণতান্ত্রিক চীনের প্রেসিডেন্ট এবং কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনেরও চেয়ারম্যান। গেল সপ্তাহে চীনা এনপিসি(নেশনেল পিপলস কংগ্রেস)-এর সকল সদস্য, মোট সদস্য সংখ্যা ২৯৭০জন, তাকে আবারও দেশের প্রেসিডেন্ট...

0

কিশোরী বিয়ে- আমাদের অবস্থান ‌ও করনীয়

হারুনূর রশীদ।। দুনিয়ার বহু দেশেই কিশোরী বিয়ের চল রয়েছে। তার মধ্যে নাইজারের অবস্থান শীর্ষে বলে জানা যায়। আর হিসেবে সবচেয়ে নিচে রয়েছে জাম্বিয়া। যে সব দেশ কিশোরী বিয়ের বিষয়ে গণনায় আসে সেসব দেশের পরিমান ২০টি। আন্তর্জাতিক...

0

স্ক্রিপল ও ইউলিয়া হত্যা চেষ্টা, কারা জড়িত রাশিয়া না-কি অন্যকেউ!

কোন জোরালো তথ্য আমাদের হাতে নেই, কেবল দীর্ঘদিন ধরে দেখে দেখে আসার অভিজ্ঞতা থেকে আমাদের ধারণা পুতিনের বিজয় ঠেকাতেই বৃটেনের রক্ষণশীলরা স্ক্রিপল ঘটনার মঞ্চায়ন করেছিলেন। কিন্তু হালে পানি পায়নি। গত ১৮ই মার্চের নির্বাচনে বিপুল ভোটে ভ্লাদিমির পুতিন ৪র্থ বারের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। হিতে বিপরীত হবার মত রুশ-বৃটেন তিক্ততা এখন সারা ইউরোপে ছড়িয়ে গেছে। বলতে গেলে অতীতের সেই ঠাণ্ডা লড়াইয়ের সময়ের বিভাজনের নতুন রূপ নিতে যাচ্ছে বলে মনে হচ্ছে।

0

আপনি আমি কে আঙ্গুল তুলে দেখিয়ে দেয়ার?

বাংলাদেশে তালিকাভুক্ত পতিতার সংখ্যার কোন জরিপ আমাদের হাতে নেই। তবে কয়েকবছর আগে রয়টারের দেয়া টাঙ্গাইলের কান্দাপাড়া পতিতালয়ের হিসেব থেকে বুঝা যায় যে বাংলাদেশের মোট ১৪টি তালিকাভুক্ত পতিতালয়ে বাসকরে অন্ততঃ ৬ থেকে ৭হাজার পতিতা। রয়টার লিখেছিল সেখানে...

0

মালদ্বীভ এখন কেমন আছে

চুপি চুপি ভারত-চীন মালদ্বীপ নিয়ে কি করছে? শান্তিপূর্ণ সহোবস্থান না কি অন্য কিছু। যা আমাদের আড়ালে ঘটে যাচ্ছে। মালদ্বীভে যখন জরুরী অবস্থা চলছে ঠিক তখনই চীনাদের ১১খানা যুদ্ধজাহাজ পূর্বভারত সাগরে দিকে রওয়ানা হয়েছিল। খবরটি গত ফেব্রুয়ারীর। পুরো ৩টি সহযোগী টেঙ্কারসসহ বিশাল লড়াই সরঞ্জাম ঐসময় ভারত সাগরে প্রবেশ করেছিল।

0

পাষণ্ড পুঙ্গব নব্য এক রাজাকারের নাম কাশেম

এও ঘটতে পারে? হ্যাঁ ঘটেছে আমাদের এই দেশে। এ যেনো শুনতে অনেকটা সেই ভয়ঙ্কর দিনগুলোর কাহিনীর মত। মুক্তিযুদ্ধের সেই ভয়াল দিনগুলিতে পাকবর্বর বাহিনী যেভাবে নারী-পুরুষের উপর অকথ্য নির্যাতন চালিয়েছিল অনেকটা সেই চিরচেনা কাহিনীর মতই নব্য এই...